বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০১:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
ক্যান্সার ওষুধ উৎপাদনে রসাটমের নতুন প্রযুক্তি ঈশ্বরদী উপজেলা স্কাউটস’র ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল সম্পন্ন রাশিয়ায় বিশ্বের একমাত্র ভাসমান এনপিপিতে পিয়ার রিভিউ মিশন সম্পন্ন ঈশ্বরদীতে সাংবাদিকদের সাথে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মতবিনিময় ঈশ্বরদীতে সরকারিভাবে ধান চাল ও গম সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধন ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী রানা সরদারের পক্ষে মিছিল ও পথসভা রাশিয়ার বিদ্যুতের ২৫ শতাংশ আসবে পরমাণু উৎস থেকেঃ রুশ প্রেসিডেন্ট ঈশ্বরদীতে নানা আয়োজনে বিশ্ব মা দিবস পালিত ঈশ্বরদীতে মাটি উত্তোলনের অভিযানে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রানা সরদারের বিজয়ের লক্ষ্যে উঠান বৈঠক

ঈদ এলেও তাদের স্বপ্ন বাড়ি যায় না

বার্তাকক্ষ
আজকের তারিখঃ বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০১:৩২ অপরাহ্ন
সড়কে শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত সময় পার করেন ট্রাফিক পুলিশ।

ঈদ এলেই সব কর্মব্যস্ততা ছেড়ে শেকড়ের পানে ছুটে যাওয়া বাঙালির অন্যতম ঐতিহ্য। প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে কতশত স্বপ্ন নিয়ে নাড়ির টানে বাড়ি যান মানুষ। পরিবারপরিজন নিয়ে মাতেন আনন্দ উল্লাসে।

সবাই যখন বাড়ি ফেরেন তখনও কিছু মানুষ থেকে যান পূর্বের স্থানে বাড়তি দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে। সবাই যখন নিজ নিজ বাড়িতে উল্লাসে মাতোয়ারা, তখন সড়কে শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে ব্যস্ত সময় পার করেন ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা। ঈদ এলেও তাদের স্বপ্ন বাড়ি যায় না। দায়িত্ব পালনেই তারা খুঁজে পান ঈদের আনন্দ। 

ঈদে মানুষ যখন বাড়ির পথে ফেরায় ব্যস্ত তখন ট্রাফিক পুলিশ রাস্তায় দাঁড়িয়ে যানজট নিরসনের কাজ করছে। ছুটিতে বাড়ি যাওয়ার বিষয়ে কথা হলে নাম না প্রকাশ করার শর্তে ট্রাফিক পুলিশের এক কনস্টেবল জানান ঈদের দিন সবাই যখন পরিবারের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে ব্যস্ত থাকেন তখনও আমাদের রাস্তায় থাকতে হয়। দায়িত্ব আর জনগণের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিতে ঈদ আনন্দের কথা ভেবে কষ্টকে তখন ভুলে যাই। 

তিনি আরও বলেন, ‘ঈদের দিন সহকর্মীরা সবাই মিলে একসঙ্গে নামাজ পড়ি। একে অন্যকে শুভেচ্ছা জানিয়ে যে যার গন্তব্যে চলে যান। আবারও প্রতিদিনের মতো দায়িত্ব পালনে ব্যস্ত হয়ে পড়ি। কেউ কেউ পরিবারের সঙ্গে ফোনে শুভেচ্ছা আদানপ্রদান করেন। মূলত এটাই আমাদের ঈদ আনন্দ।

ছুটির প্রসঙ্গে ঈশ্বরদী ট্রাফিক পুলিশ ইনচার্জ আরিফুল ইসলাম বলেন, সবাই তো আর ছুটি পাবে না। নাগরিকদের জানমালের নিরাপত্তায় কাউকে না কাউকো ত্যাগ স্বীকার করতেই হয়। পুলিশে চাকরি নেওয়ার সময়ই আমাদের বলা হয়েছে, আমাদের চাকরি জীবনে ছুটি বলতে কোনো শব্দ নেই। রাষ্ট্র জনগণের প্রয়োজনে যে কোনো মুহূর্তে আমাদের প্রস্তুত থাকতে হয়। মানুষ যেন নির্বিঘ্নে ঈদ করে নিজ নিজ ঠিকানায় ফিরে যেতে পারেন আমরা সে দায়িত্বটুকু পালন করছি। আর এতেই আমাদের আনন্দ।

তিনি আরও বলেন, আমার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা ট্রাফিক পুলিশে ১৭ বছর পার করে দিছি। চাকরির সূত্রে এখন ঈশ্বরদীতে আছি। পরিবারের সঙ্গে ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে কার না মন চায়। কিন্তু, আমাদের কাঁধে যে দায়িত্ব রয়েছে, সেটি পালন না করার তো কোনো উপায় নেই। ঈশ্বরদী থানায় ট্রাফিক বিভাগে ১৮ জন সদস্য রয়েছেন। এর মধ্যে এবার ঈদে ছুটি পেয়েছেন জন। বাকিরা সবাই ঈদের ডিউটি করছেন।


এই বিভাগের আরো খবর........
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error: কপি করার অনুমতি নেই !
error: কপি করার অনুমতি নেই !