বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন

লাল লিচুতে রঙিন ঈশ্বরদী, বেচাকেনার ধুম

বার্তাকক্ষ
প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন
টুকটুকে লাল লিচু।

গাছে গাছে ঝুলছে টুকটুকে লাল লিচু। কেউ গাছে উঠে লিচু ভাঙছেন, কেউবা নিচে বসে বাছাই করছেন। মান অনুযায়ী তৈরি হচ্ছে ঝুড়ি। এরপর সেগুলো চলে যাচ্ছে স্থানীয় বাজার থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সব মিলিয়ে যেন এক উৎসবের আমেজ।

ঈশ্বরদীর লিচুর বাজার গুলোতে এরই মধ্যে বেচাকেনা বেশ জমে উঠেছে। জেলার সবচেয়ে বড় লিচুর বাজার আওতাপাড়া জয়নগর শিমুলতলায় ভোরের আলো ফোটার আগেই বাজারে বেচাকেনা শুরু হয়ে চলে সকাল ৮টা পর্যন্ত।

ঈশ্বরদীর আওতাপাড়া ও জয়নগর শিমুলতলা লিচুর বাজারে গিয়ে দেখা যায়, বর্তমানে মোজাফ্ফর বা দেশি লিচু বাজারে উঠতে শুরু করেছে। আগামী সপ্তাহের শুরু থেকে সুস্বাদু বোম্বাই জাতের লিচু পাওয়া যাবে। এদিকে বর্তমান পাইকারি বাজারে প্রতি হাজার দেশি লিচু মানভেদে ১ হাজার ৪০০ থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

ঈশ্বরদীর মানিকনগর গ্রামের লিচুবাগান মালিক মোস্তফাজামান নয়ন বলেন, তার ১২ বিঘার ওপরে একটি লিচু বাগান আছে। প্রতি বছর ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকার লিচু বিক্রি করেন তিনি। এ বছর ফলন ভালো হয়েছে। আঁটি জাতের লিচুর দাম আশানুরুপ কম হলেও বোম্বাই লিচুতে অধিক দাম পাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন তিনি।

ঈশ্বরদীর মানিকনগর গ্রামের লিচুবাগান মালিক এস এম শিশির মাহমুদের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ১৬ বিঘা জমির ওপর ৫৫টি লিচু গাছ রয়েছে। ৬ বিঘা জমিতে আঁটি জাতের লিচু রয়েছে। বাকি বাগানগুলোতে বোম্বাই লিচু চাষ হয়েছে। আঁটি জাতের লিচুর দাম আশানুরুপ কম হলেও বোম্বাই লিচুতে অধিক দাম পাওয়ার আশা ব্যক্ত করেন তিনি।

ঈশ্বরদী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিধ মিতা সরকার জানান, এ বছর লিচুর ফলন উপযোগী আবহাওয়া রয়েছে। গ্রীষ্মের শুরুতে বড় আকারের ঝড়–বৃষ্টি না হওয়ায় বাম্পার ফলন পাওয়া যাবে। তিনি বলেন, উপজেলাটিতে যে পরিমাণ লিচু উৎপাদন হয়, সে বিবেচনায় এখানে লিচু সংরক্ষণাগার প্রয়োজন।

শেয়ার করুন...


এই বিভাগের আরো খবর........
.
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error: কপি করার অনুমতি নেই !
error: কপি করার অনুমতি নেই !