রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
সারদায় প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী রাজশাহীতে আ’লীগের জনসভা উপলক্ষে ঈশ্বরদী থেকে যুক্ত হলো আরো একটি স্পেশাল ট্রেন ঈশ্বরদীতে বে-সরকারি বিদ্যুৎ শ্রমিক ইউনিয়নের চড়ুই ভাঁতী অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে ঈশ্বরদীতে নূরুজ্জামান বিশ্বাস এমপির নেতৃত্বে আ:লীগের ব্যাপক প্রস্তুতি পাবনা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে মুক্তা সভাপতি আহাদ বাবু সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত ঈশ্বরদীতে মাতৃছায়া কিন্ডারগার্ডেন বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদীতে শিক্ষার গুণগত মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষক সমিতির ৩ দিনের প্রশিক্ষণ কর্মশালা ঈশ্বরদীতে নবনিয়োগপ্রাপ্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নবীনবরণ নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি ঈশ্বরদীতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণামূলক অনুষ্ঠান ‘এসো মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনি’ অনুষ্ঠিত

রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামির ফাঁসি কার্যকর

নিজস্ব প্রতিনিধি
আজকের তারিখঃ রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১২:৩৮ অপরাহ্ন
রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার

রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার এক আসামির ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১০টা ১ মিনিটে রাকিবর ওরফে আকিবর নামে ওই আসামির ফাঁসি কার্যকর করা হয়। রাকিবর রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার নিমতলা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার আবদুল জলিল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, দীর্ঘ ২৩ বছর ৩ মাস ধরে রাজশাহী কারাগারে বন্দি ছিলেন রাকিবর। আইনগত সব প্রক্রিয়া শেষে বুধবার রাতে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে।

কারা সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৯ সালের ২ জুন সন্ধ্যার পর গোদাগাড়ী উপজেলার নিমতলা গ্রামে মোরশেদা খাতুন নামের এক তরুণীকে ধর্ষণের পর গলাকেটে হত্যা করা হয়। এ ব্যাপারে মোরশেদার বাবা আবদুল জাব্বার বাদী হয়ে পরদিন গোদাগাড়ী থানায় মামলা করেন।

এরপর ২০০৪ সালের ৮ আগস্ট এ মামলার রায় ঘোষণা হয়। রায়ে নিম্ন আদালত আসামি রাকিবরসহ চার জনকে মৃত্যুদণ্ড দেন। পরে আসামির আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দীর্ঘ সময় উচ্চ আদালত এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল-শুনানি চলতে থাকে।

তবে শেষ পর্যন্ত সবখানেই রাকিবরের ফাঁসির দণ্ড বহাল থাকে। এরপর আসামি রাকিবর রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চান। তবে প্রাণভিক্ষার আবেদনও নাকচ হয়ে যায়। এরপর আইনগত সমস্ত প্রক্রিয়া শেষে বুধবার কারাগারে আসামির ফাঁসির দণ্ড কার্যকর করা হয়।

ফাঁসি কার্যকরের সময় রাজশাহী বিভাগের কারা উপ-মহাপরিদর্শক অসীম কান্ত পাল, জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল, সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মোহাম্মদ ফারুক, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সাবিহা সুলতানাসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

শেয়ার করুন...


এই বিভাগের আরো খবর........
.
এক ক্লিকে বিভাগের খবর