রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
রাজশাহীতে আ’লীগের জনসভা উপলক্ষে ঈশ্বরদী থেকে যুক্ত হলো আরো একটি স্পেশাল ট্রেন ঈশ্বরদীতে বে-সরকারি বিদ্যুৎ শ্রমিক ইউনিয়নের চড়ুই ভাঁতী অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে ঈশ্বরদীতে নূরুজ্জামান বিশ্বাস এমপির নেতৃত্বে আ:লীগের ব্যাপক প্রস্তুতি পাবনা আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচনে মুক্তা সভাপতি আহাদ বাবু সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত ঈশ্বরদীতে মাতৃছায়া কিন্ডারগার্ডেন বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরদীতে শিক্ষার গুণগত মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষক সমিতির ৩ দিনের প্রশিক্ষণ কর্মশালা ঈশ্বরদীতে নবনিয়োগপ্রাপ্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নবীনবরণ নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি ঈশ্বরদীতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণামূলক অনুষ্ঠান ‘এসো মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনি’ অনুষ্ঠিত লালপুরে মাটি বোঝাই ট্রাক্টর চাপায় শিশু নিহত

ঋণের মামলায় ঈশ্বরদীর ১২ কৃষক গ্রেফতার, কারাগারে প্রেরণ

বার্তাকক্ষ
আজকের তারিখঃ রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

ঋণ নিয়ে ফেরত না দেওয়ায় পাবনার ঈশ্বরদীতে গ্রেফতার ১২ প্রান্তিক কৃষককে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমাইয়া বেগম তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গ্রেফতাররা হলেন- উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ভাড়ইমারি গ্রামের মৃত সোবহান মণ্ডলের ছেলে আবদুল গণি মণ্ডল (৫০), মৃত আয়েজ উদ্দিনের ছেলে সামাদ প্রামাণিক (৪৩), শুকুর প্রামাণিকের ছেলে আলম প্রামাণিক (৫০), মনিরুলের ছেলে মাহাতাব মণ্ডল (৪৫), কামাল প্রামাণিকের ছেলে শামীম হোসেন (৪৫), মৃত সামির উদ্দিনের ছেলে নূর বক্স (৪৫), মৃত আখের উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান (৫০), রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ আকরাম (৪৬), লালু খাঁর ছেলে মোহাম্মদ রজব আলী (৪০), মৃত কোরবান আলীর ছেলে কিতাব আলী (৫০), মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ মজনু (৪০) ও হারেজ মিয়ার ছেলে হান্নান মিয়া (৪৩)। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, সমবায় ব্যাংক থেকে ৩৭ জন কৃষক ২৫-৩০ হাজার টাকা করে ঋণ নিয়েছিলেন। এই ঋণ সুদসহ ফেরত না দেওয়ায় ২০২১ সালে তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। পরে আদালত পরোয়ানা জারি করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১২ জনকে গ্রেফতার করে।

কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ বলেন, যে অভিযোগে কৃষকদের গ্রেফতার করা হয়েছে এটি সঠিক নয়। ঋণের টাকা কৃষকরা বহু আগে পরিশোধ করেছেন। পরিশোধের রশিদ তাদের কাছে আছে।

তিনি আরও জানান, দেশে হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে অনেকে খেলাপি হয়ে আছেন। কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি আদেশ জারি হয় না। তারা গ্রেফতার হন না। অথচ কৃষকের সামান্য কয়েক হাজার টাকা ঋণ পরিশোধের পরও মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। কৃষকদের অকারণে গ্রেফতার ও কারাগারে পাঠানোয় নিন্দা জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন...


এই বিভাগের আরো খবর........
.
এক ক্লিকে বিভাগের খবর