শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শিরোনামঃ
ঈশ্বরদীতে কৃষকের নায্যমূল্যে সার নিশ্চিত করতে মাঠে কৃষি কর্মকর্তা রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্ত হলো ইউক্রেনের চার প্রদেশ আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব নিলেন চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে দুই সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন চাটমোহরে বড়াল নদী রক্ষায় করনীয় শীর্ষক আলোচনা সভা পাবনায় বিআরটিএর সহকারী পরিচালক ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিটে ব্রিজক্রেন স্থাপনের কাজ সম্পন্ন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে রূপপুর বিদ্যুৎ প্রকল্পের শ্রমিকের মৃত্যু ঈশ্বরদীতে আখের সঙ্গে সাথি ফসল চাষে ভাগ্য ফিরছে কৃষকের ঈশ্বরদীতে দুপুরে বাসা ভাড়া নিয়ে রাতেয় স্ত্রীকে হত্যা

ঈশ্বরদীতে হুইল চেয়ার না থাকায় হাতে ভর দিয়ে চলেন শিক্ষক রুবেল

বার্তাকক্ষ
প্রকাশিতঃ শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন
খন্ডকালিন শিক্ষক রুবেল

রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করে খন্ডকালিন শিক্ষক হিসেবে ছাত্রছাত্রী পড়াচ্ছেন প্রতিবন্ধী রুবেল হোসেন। একটি হুইল চেয়ারের অভাবে হাতের ওপর ভর করে চলাচল করেন তিনি।

জানা যায়, মাত্র ৬ বছর বয়সে জ্বরে দুটো পা প্যারালাইজ হয়ে যায় রুবেলের। এরপর থেকে সংগ্রামের শুরু। ঈশ্বরদী উপজেলার মিরকামারী গ্রাম থেকে প্রাইমারি ও মাধ্যমিক শেষ করে দাশুড়িয়া ডিগ্রি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক ও গ্রাজুয়েশন করেন রুবেল হোসেন।

লেখাপড়ার অদম্য ইচ্ছা তাকে এগিয়ে চলতে উৎসাহিত করেছে। এরপর পাবনা অ্যাডওয়ার্ড কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রী করেন রুবেল। এখন রুবেল হোসেন খণ্ডকালীন শিক্ষক হিসাবে ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া এমএম উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করছেন।

কিন্তু প্রতিষ্ঠানে আসতে বেশ কষ্ট হয় রুবেলের। হাতে ভর দিয়ে আসা-যাওয়া করতে হয় তাকে। সমাজের অনেকের অনেক টাকা-পয়সা থাকলেও শিক্ষক রুবেলের মতো এক ভাগ্য বিড়ম্বনার শিকার মানুষের জোটেনি একটি হুইল চেয়ার।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক এসএম জহুরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা স্কুল থেকে খণ্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে রুবেলকে মাসে ৬ হাজার টাকা দেই।

শেয়ার করুন...


এই বিভাগের আরো খবর........
.
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
error: কপি করার অনুমতি নেই !
error: কপি করার অনুমতি নেই !